দোহারে ঢুকলেই হোম কোয়ারেন্টাইন; উপজেলা ও থানা প্রশাসনের নতুন উদ্যোগ

3068

মোস্তফা কুদ্দুস : ঢাকার দোহার উপজেলা ও থানা প্রশাসন নতুন উদ্যোগ গ্রহন করেছেন। জানা যায় পূর্বে বিদেশ থেকে আসলে সে জন্য হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করা হত। কিন্তু বর্তমানে ঢাকা জেলা, পার্শবর্তী জেলা নারায়ণগঞ্জ জেলা, উপজেলা ও নবাবগঞ্জ সহ অনেক য়ায়গায় ( কোভিড-১৯) করোনা ভাইরাস সংক্রমন ধরা পড়ায় দোহার থানা ও উপজেলা প্রশাসন এ উদ্যোগ গ্রহন করে।

আজ শুক্রবার থেকে নতুন এক উদ্যোগ গ্রহন করেছেন থানা ও উপজেলা প্রশাসন। বাংলাদেশের যে কোন জেলা উপজেলা থেকে দোহারে ঢুকলেই তাদেরকে হোম কোয়ারেন্টাইন করা হবে । চলবে করোনা ভাইরাস সংক্রমন রোধ না হওয়া পর্যন্ত এ কর্ম সূচি অব্যাহত থাকবে বলে তথ্য নিশ্চিত করেছেন দোহার উপজেলা ও থানা প্রশাসন।

উল্ল্যেখ হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে দোহার উপজেলা নির্বাহী অফিসার আফরোজা আক্তার রিবার নেতৃত্বে ( কোভিড-১৯) করোনা ভাইরাস রোধ করার লক্ষে ঢাকার দোহারে ( ১০ এপ্রিল ) শুক্রবার অন্য জেলা থেকে আগত ২৮ জনকে হোম কোয়ারান্টাইন নিশ্চিত করেছে উপজেলা প্রশাসন।

দোহার উপজেলা নির্বাহী অফিসার, ভ্রাম্যমান আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট আফরোজা আক্তার রিবা সামাজিক দুরত্ব বজায় না রেখে জনসমাগম করার অপরাধে ৫ জনকে ১২শত টাকা জরিমানা করেন । এছাড়া মসজিদ সমূহে না যেয়ে বাসায় নামাজ পড়তে জনসচেতনতা চালানো হয়।

এ বিষয়ে দোহার থানা ভারপ্রাপ্ত অফিসার সাজ্জাদ হোসেন বলেন, করোনা ভাইরাস সংক্রমন একটা জাতীয় সমস্যা, অামাদের অাশপাশে জেলা উপজেলায় করোনা ভাইরাস ধরা পরায় এবং দোহারবাসীকে সতর্ক করার লক্ষে অামাদের এ উদ্যোগ গ্রহন করা।

এবিষয়ে দোহার উপজেলা নির্বাহী অফিসার আফরোজা আক্তার রিবা জানান, অতিতে উপজেলা প্রশাসনের সচেতনতা অভিযানের ফলে আমরা সফল। এবং আজ পর্যন্ত একজনও করোনা সন্যাক্ত হয়নী। সে ধারাবাহিকতা বজায় রাখার লক্ষে আমাদের এই উদ্যোগ গ্রহন করা। এবং মসজিদে ৫জন এর বেশি যেন নামাজ না পড়েন সেই বিষয়ে জনসচেতনতামুলক অভিযান চালানো হবে।