দোহার-নবাবগঞ্জে বিপদজনক রুপ নিচ্ছে করোনা; আক্রান্ত বেড়ে- ৫২৩ জন; মৃত্যু-৭ জন

183

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকার দোহার-নবাবগঞ্জ করোনাভাইরাস বিপদজনক রুপ নিচ্ছে বলে মন্তব্য করছেন সাধারণ মানুষ। এই দুই উপজেলায় করোনায় আক্রান্ত রোগী বেড়ে দাড়িয়েছে ৫২৩ জনে। দিনকে দিন বাড়ছে করোনা রোগীর সংখা। কিন্তু আশারবানী হল এই দুই উপজেলায় সুস্থ্যতার হাড় সাধারণত বেশী।

জানাযায়, দোহার উপজেলায় আক্রান্ত ৭ জনকে নিয়ে মোট দাড়িয়েছে ২৩৯ জন। এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১ নারী-সহ মৃত্যুবরণ করেছে ৩ জন। সুস্থ হয়েছে ১৭০ জন। দোহার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. জসিম উদ্দিন করোনা শনাক্তের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

২৮ জুন রোববার সকালে দোহার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. জসিম উদ্দিনের তথ্য মতে, দোহার থেকে ঢাকায় পাঠানো নমুনা থেকে ৭ জনের করোনাভাইরাস পজিটিভ এসেছে। নতুন করে আক্রান্ত হওয়া ৭ জনের চিকিৎসা-সহ বিভিন্ন বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে এবং আক্রান্ত ব্যক্তিদের সংস্পর্শে যারা এসেছেন তাদের হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হবে।

এছাড়া ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলায় নতুন আরও ৮ জনের শরীরে করোনাভাইরাস রোগী শনাক্ত হয়েছে । ৮ জনকে নিয়ে উপজেলায় করোনাভাইরাসে মোট রোগী দাড়িয়েছে ২৮৪ জন। এদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন ১৪৫ জন।

করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছে ৪ জন। নবাবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার (রোগ নিয়ন্ত্রণ) ডা. হরগোবিন্দ সরকার অনুপ করোনা শনাক্তের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছেন।

জানা যায়, ২৯ জুন সোমবার সকালে নবাবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার (রোগ নিয়ন্ত্রণ) ডা. হরগোবিন্দ সরকার অনুপ জানান, ঢাকায় পাঠানো নমুনা থেকে নতুন করে আরও ৮ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে আক্রান্তদের স্বজনদের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে নির্দেশ দেওয়া সহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছে ভজন রাজবংশী(চুড়াইন), গৌরাঙ্গ বণিক(বান্দুরা) ও সুরুজ খান(আগলা), তৈয়ব আহমেদ(কলাকোপা) সহ ৪ জন।

মোট দোহার নবাবগঞ্জে করোনাভাইরাস রোগে আক্রান্ত হয়েছেন ৫২৩ জন। সুস্থ্য হয়েছেন ৩১৫ জন। মৃত্যুবরন করেছেন ৭ জন।